সোমবার, ০৩ মে ২০২১, ০৫:০৭ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধু এবং একখানা সিলভার মেডেল

আজকের এই বিশেষ দিনে দীর্ঘ দুই যুগ আগের বিশেষ স্মৃতি কথা এক ঝাঁক রাঙা শৈলের পোনার মতো মনের অতল থেকে কেন জানি হঠাৎ ভেসে উঠল। ১৯৯৬ সাল। দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ সবে ক্ষমতায় এসেছে। এসেই দেশের হাইস্কুলগুলোতে জেলাভিত্তিক রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন শুরু করে দিল। যত দূর মনে পড়ে রচনার বিষয়বস্তু ছিল- ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বাংলাদেশ’। এই প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্যই ছিল কিশোর এবং তরুণদের মাঝে শেখ মুজিবের আদর্শ ছড়িয়ে দেয়া। তো প্রতিদিনের মতো সেদিনও যথানিয়মে স্কুলে গেলাম। সবেমাত্র সিরাজ স্যার অঙ্ক ক্লাস শেষ করে রুম থেকে বেরিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গেই প্রয়াত ওহাব স্যার ক্লাসে এসে হাজির। তিনি আমাদের বাংলা পড়াতেন। স্যার ক্লাসে এসেই টেবিলে ডাস্টার চাপিয়ে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে শুরু করলেন আমাদের স্কুলের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু রচনা প্রতিযোগিতায় আমি সুজিত, কফিল, মৃণাল…(বাকিদের নাম এই মুহূর্তে স্মরণে আসছে না) এর নাম দিয়ে দিয়েছি। ডিসি অফিসে বেলা দুইটায় প্রতিযোগিতা শুরু হবে। কেউ যেতে চাইলে এখন চলে যা, বাসায় গিয়ে পড়। বেলা বাজে তখন ১১ টা। যাওয়া আসার সময় বাদ দিলে হাতে সময় আছে দেড় ঘণ্টা। মুখের কথা শোঁ শোঁ বাতাস যেমন উড়িয়ে নিয়ে সমুদ্রের হু হু গর্জনের তলায় চাপা দিয়ে দেয় ঠিক তেমনি স্যারের হাতে রাখা ২ ফুট লম্বা চিকন তৈলাক্ত বক্র বেতের চাহনির কাছে সবার মুখের অব্যক্ত কথা কিছু সময়ের জন্য যেন হারিয়ে গেল।

নিউজটি শেয়ার করুন


      এ জাতীয় আরো খবর..